কেন্দ্রীয় শূরা অধিবেশন সম্পন্নঃ দেশ এক মারাত্মক রাজনৈতিক সংকটের মধ্য দিয়ে...

ঢাকা, ২২ জানুয়ারী ২০১৬ঃ খেলাফত মজলিসের সিনিয়র নায়েবে আমীর অধ্যক্ষ মাসউদ খান বলেছেন দেশ আজ এক মারাত্মক রাজনৈতিক সংকটের মধ্য দিয়ে অতিক্রম করছে। দেশের বিরাজমান অস্থিতিশীলতার মূল কারণ হচ্ছে এ রাজনৈতিক সংকট। জনগণের মধ্যে বিভক্তি সৃষ্টির মাধ্যমে রাষ্ট্রকে দুর্বল করার ষড়যন্ত্র... বিস্তারিত পড়ুন

জামেয়া ইউনিসিয়ায় হামলা ও হাফেজ মাসুদ হত্যায় জড়িতদের অবিলম্বে গ্রেফতার দাবী...

ঢাকা, ১২ জানুয়ারী ২০১৬ঃ খেলাফত মজলিসের আমীর মাওলানা মোহাম্মদ ইসহাক ও মহাসচিব ড. আহমদ আবদুল কাদের ব্রাক্ষ্মণবাড়িয়ার ঐতিহ্যবাহী জামেয়া ইউনিসিয়া মাদ্রাসায় গতরাতে পুলিশের ছত্রছায়ায় ছাত্রলীগ ও কিছু নামধারী ব্যবসায়ীদের সশস্ত্র হামলা ও মাদ্রাসার একজন ছাত্র নিহতের ঘটনার তীব্র নিন্দা... বিস্তারিত পড়ুন

খেলাফত মজলিস দক্ষিন সুরমার সাংগঠনিক সম্পাদক বিলাল আহমদের আকস্মিক ইন্তিকাল,...

ঢাকা, ১১ জানুয়ারী ২০১৬ঃ খেলাফত মজলিস সিলেট জেলার দক্ষিন সুরমা উপজেলার সাংগঠনিক সম্পাদক তরুন ব্যবসায়ী বিলাল আহমদের আকস্মিক ইন্তিকালে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন খেলাফত মজলিসের আমীর অধ্যক্ষ মাওলানা মোহাম্মদ ইসহাক ও মহাসচিব ড. আহমদ আবদুল কাদের। প্রদত্ত এক যৌথ শোকবাণীতে নেতৃদ্বয়... বিস্তারিত পড়ুন

প্রকাশিত প্রতিবেদনের প্রতিবাদ

ঢাকা, ৯ জানুয়ারী ২০১৬ঃ আজ (৯ জানুয়ারী-২০১৬) বাংলাদেশ প্রতিদিন পত্রিকার শেষ পৃষ্ঠায় ‘নতুন জোট ইসলামী ঐক্যজোটের নেতৃত্বে’ শীর্ষক প্রতিবেদনে খেলাফত মজলিস এবং খেলাফত মজলিসের আমীরকে জড়িয়ে প্রকাশিত প্রতিবেদনের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন খেলাফত মজলিসের আমীর মাওলানা মোহাম্মদ ইসহাক ও... বিস্তারিত পড়ুন

দেশ একদলীয় দু

নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধিনে দ্রুত জাতীয় নির্বাচন দিতে হবে ঢাকা, ৫ জানুয়ারী ২০১৬ঃ খেলাফত মজলিসের মহাসচিব ড. আহমদ আবদুল কাদের বলেছেন, বলেছেন, ৫ জানুয়ারীর ভোট ও ভোটারবিহীন নির্বাচনের মাধ্যমে দেশ একদলীয় দু:শাসনের কবলে পড়েছে। একদলীয় শাসন জাতির জন্যে অত্যন্ত ক্ষতিকর। ঐ... বিস্তারিত পড়ুন

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম


মানুষ আল্লাহর খলিফা ও বান্দা । খেলাফত ও উবুদিয়্যাতের দায়িত্ব যথাযথভাবে আঞ্জাম দেয়ার উপরই মানুষের দুনিয়ার সামগ্রিক কল্যাণ এবং আখেরাতের মুক্তি ও শান্তি নির্ভরশীল।

ইসলাম মানুষের জন্য মনোনীত দ্বীন ও সর্বোত্তম জীবন ব্যবস্থা। ইবলিসী চক্রান্তে সৃষ্ট শোষণ-নির্যাতন, নৈরাজ্য, অনৈক্য-বিভেদ, অন্যায়-অবিচার-অনাচার, যুদ্ধ-সংঘাতে পরিপূর্ণ বিপর্যস্ত পৃথিবীর হতাশাগ্রস্ত মানুষের একমাত্র মুক্তির পথ ইসলাম। সমাজের সর্বস্তরে ইসলামের পূর্ণ প্রতিষ্ঠাই শান্তি ও অগ্রগতি, সুবিচার ও সাম্যের নিশ্চয়তা দিতে পারে।

বর্তমানে উলামা মাশায়েখ ও দ্বীনদার শ্রেণীর মাধ্যমে ইসলামের বিভিন্ন পরিমন্ডলে ইসলামের বাস্তবরূপ তথা খেলাফত ব্যবস্থা কায়েম নেই দীর্ঘদিন ধরে। অথচ মানবতার বিশেষভাবে মুসলিম বিশ্বের মুক্তি, সমৃদ্ধি, সম্মান ও দায়িত্ব গোটা মুসলিম জাতির, বিশেষভাবে উলামা-মাশায়েখ, দ্বীনদার বুদ্ধিজীবী ও রাজনীতিকদের।

বাংলাদেশের ক্ষেত্রে এ সত্য সমভাবে প্রযোজ্য। এখানকার সামাজিক বৈষম্য, অর্থনৈতিক শোষণ, রাজনৈতিক নিপীড়ন, হানাহানি, সাংস্কৃতিক নৈরাজ্য ও দেউলিয়াপনা এবং বৈদেশিক আধিপত্যের অবসানে গোটা সমাজ ব্যবস্থাকে ইসলামের আলোকে পুনর্গঠিত করতে হবে। দেশের পনের কোটি মানুষের কল্যাণ ও সমৃদ্ধির জন্য ইসলামী আদর্শের ভিত্তিতে সমাজের বিপ্লবাত্মক পরিবর্তন তথা একটি ইসলামী বিপ্লব প্রয়োজন। প্রয়োন খেলাফত ব্যবস্থাকে এখানে পুনরুজ্জীবিত করে দেশকে সত্যিকার অর্থে একটি সার্বজনীন কল্যাণ রাষ্ট্রে পরিণত করা। এ শুধু পার্থিব প্রয়োজনেই নয় বরং আখেরাতের মুক্তির জন্যো অপরিহার্য।

বাংলার জমীনে আল্লাহ্র খেলাফত প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে এ দেশের ইসলামী আন্দোলনের ক্ষেত্রে এক নবতর সমন্বয়ধর্মী ও গণভিত্তিক ঐতিহ্য-চেতনা সমৃদ্ধ আপোষহীন নির্ভেজাল ইসলামী আন্দোলন গড়ে তোলার প্রয়োজনে ১৯৮৯ সালের ৮ই ডিসেম্বর খেলাফত মজলিস আত্মপ্রকাশ করেছে।